২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপের সরাসরি অংশগ্রহণ করেছিল বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। আইসিসি ওয়ানডে র্র্যাংকিংয়ে সপ্তম স্থানে থেকে ওই বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করেছিল বাংলাদেশ। তবে ২০২৩ বিশ্বকাপ সরাসরি খেলতে হলে আর র্র্যাংকিংয়ের দিকে তাকাতে হবে না কোন দেশকে।

বৃহস্পতিবার থেকে চালু হচ্ছে বিশ্বকাপের সুপার লিগ রাউন্ড খেলা। বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাসের কারণে কয়েক মাস পিছিয়ে যায় আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ সুপার লিগ।

অবশেষে আগামী বৃহস্পতিবার ইংল্যান্ড বনাম আয়ারল্যান্ড এর মধ্যকার তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচের মাধ্যমে বিশ্বকাপের সুপার লিগের খেলা শুরু হবে। প্রাথমিকভাবে ২০২৩ সালের বিশ্বকাপের সূচি নির্ধারিত ছিল ফেব্রুয়ারি-মার্চে।

কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে দুইটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সূচিতে পরিবর্তন আনায় ওয়ানডে বিশ্বকাপও পিছিয়ে নেয়া হয়েছে অক্টোবর-নভেম্বর মাসে।

আইসিসির মহাব্যবস্থাপক জিওফ অ্যালারডিস বলেছেন, ‘এই লিগের মাধ্যমে আগামী তিন বছর ওয়ানডে ক্রিকেটে বাড়তি মাত্রা যোগ হবে।

কেননা এর সঙ্গে ২০২৩ সালের বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ জড়িত। সুপার লিগের ফলে বিশ্বের ক্রিকেট দর্শকরা আরও জমজমাট খেলা দেখতে পারবে।’

তিনি বলেন, ‘গত সপ্তাহে ২০২৩ সালের বিশ্বকাপটি সে বছরের শেষের দিকে আয়োজন করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এর ফলে

করোনাভাইরাসের কারণে যেসব সিরিজ স্থগিত হয়ে গেছে, সেগুলো আয়োজন করার যথেষ্ঠ সময় পাবো আমরা। এখন আমরা মাঠের খেলার মাধ্যমেই বাছাইয়ের সিদ্ধান্ত নিতে পারব।’

একেকটি সিরিজ হবে তিন ম্যাচের। সুপার লিগ পর্বে প্রতিটি জয়ের জন্য থাকছে ১০ পয়েন্ট। টাই বা পরিত্যক্ত ম্যাচে ৫ পয়েন্ট। তিন বছরের পালা শেষে লিগের শীর্ষ ৭ দল সরাসরি অংশ নেবে ওয়ানডের ২০২৩ বিশ্বকাপে, যার আয়োজক ভারত। কোহলির দেশের অবশ্য অতশত ভাবনা নেই, স্বাগতিক হিসেবেই সরাসরি খেলতে পারবে বিশ্বমঞ্চে।

যারা সরাসরি বিশ্বকাপে জায়গা করে নিতে পারবে না, সেই ৫ দল ও সহযোগী ৫ দলকে পরীক্ষা দিতে হবে আরেকটি বাছাইপর্বে। সেখান থেকে পরের বিশ্বকাপে যাবে মাত্র দুটি দল। ১০ দল নিয়ে হবে ভারতের বিশ্ব আসরটি।

এই বছরের শেষের দিকে শ্রীলংকার বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ দিয়ে এই টুর্নামেন্টের যোগ দেবে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের পরবর্তী সিরিজ চূড়ান্ত সময়সূচী

ডিসেম্বর-২০২০, বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা সফর (ম্যাচ: ৩ ওয়ানডে, স্থান: বাংলাদেশ) জানুয়ারী – ফেব্রুয়ারী ২০২১, ওয়েস্ট ইন্ডিজ-বাংলাদেশ সফর (ম্যাচ: ৩ টেস্ট, ৩ ওয়ানডে এবং ২ টি-টুয়েন্টি, স্থান: বাংলাদেশ) ফেব্রুয়ারি – মার্চ ২০২১ নিউজিল্যান্ড- বাংলাদেশ সফর (ম্যাচ: ৩ ওয়ানডে এবং ৩ টি -টুয়েন্টি, স্থান: নিউজিল্যান্ড)জুন – জুলাই ২০২১ বাংলাদেশ জিম্বাবুয়ে সফর(ম্যাচ: ২ টেস্ট, ৩ ওয়ানডে এবং ৩ টি -টুয়েন্টি, স্থান: জিম্বাবুয়ে) সেপ্টেম্বর – অক্টোবর ২০২১ বাংলাদেশ সফর (ম্যাচ: ৩ ওয়ানডে এবং ৩ টি -টুয়েন্টি, স্থান: বাংলাদেশ) নভেম্বর – ডিসেম্বর ২০২১ পাকিস্তান বাংলাদেশ সফর, (ম্যাচ: ২ টেস্ট এবং ৩ টি টুয়েন্টি, স্থান: বাংলাদেশ)

ডিসেম্বর ২০২১, বাংলাদেশ -শ্রীলঙ্কা সফর (ম্যাচ: ২ টেস্ট স্থান: বাংলাদেশ) ডিসেম্বর-জানুয়ারী ২০২১-২২ বাংলাদেশ নিউজিল্যান্ড সফর (ম্যাচ: ২ টেস্ট এবং ৩ টি টুয়েন্টি, স্থান: নিউজিল্যান্ড) ফেব্রুয়ারি – মার্চ ২০২২ আফগানিস্তান বাংলাদেশ সফর (ম্যাচ: ৩ ওয়ানডে, ২ টি টুয়েন্টি স্থান: বাংলাদেশ) মার্চ ২০২২ বাংলাদেশ দক্ষিণ আফ্রিকা সফর (ম্যাচ: ২ টেস্ট এবং ৩ ওয়ানডে স্থান: দক্ষিণ আফ্রিকা)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here